আলাপ আইপি কলিং অ্যাপ রিভিউ

আইপি ফোন (IP Phone) শব্দটির সাথে আমরা অনেকেই পরিচিত। মুলতঃ আইপি ফোন হল আইপি নেটওয়ার্ক বা ইন্টারনেট কানেকশন ব্যাবহার করে টেলিফোন কল স্থাপন এবং প্রেরণের জন্য এক প্রকারের বিশেষ টেলিফোন।

আইপি ফোন কে আবার ভিওআইপি ফোনও বলা হয়ে থাকে। বাংলাদেশে অনেক গুলো আইপি ফোন সার্ভিস প্রোভাইডার রয়েছে। তাদের মধ্যে আম্বার আইটি, ব্লিলিয়ান্ট কানেক্ট, আইসিসি কমিউনিকেশন, ডায়াল অন্যতম । ঠিক এই রকম একটি আইপি কলিং এপ হল আলাপ (Alaap) । তাহলে চলুন আলাপ আইপি কলিং অ্যাপ সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা যাক ।

আলাপ অ্যাপ কি?

আপনারা প্রায় সবাই জানেন যে বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন কোম্পানি (BTCL) বাংলাদেশের টেলিযোগাযোগ সেক্টরটি নিয়ন্ত্রন করে থাকে। বাংলাদেশে বর্তমানে থাকা বিভিন্ন আইপি সেবা গুলোর পাশা পাশি বিটিসিএল চালু করেছে নতুন একটি আইপি কলিং অ্যাপ, যার নাম “আলাপ“। ২৬ মার্চ ২০২১ ইং তারিখে প্রথম অফিশিয়াল ভাবে “আলাপ” অ্যাপ রিলিজ হয়। আলাপ অ্যাপ দিয়ে মূলত বাংলাদেশি সকল ধরনের নাম্বার সহ বিদেশি নাম্বারেও কথা বলা যাবে। এমনকি যারা আইপি ফোন ব্যবহার করে না তাদেরকেও আলাপ আইপি নাম্বার ব্যবহার করে কল দেওয়া যাবে ।  আলাপ অ্যাপটি ব্যবহার করার জন্য অবশ্যই ইন্টারনেট কানেশনের প্রয়োজন পরবে।

alaap

আলাপ অ্যাপে কি কি ফিচার রয়েছে

ইউনিক আইপি নাম্বারঃ
আলাপ অ্যাপ ইন্সটল করে রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন করলেই আপনি পেয়ে যাবেন একটি ইউনিক আইপি নাম্বার। সাধারণ ফোন নম্বরের মতোই যে কোনো ব্যবহারকারী, এই নাম্বারে আপনাকে ফোন করতে পারবেন। হতে পারে সেটা মোবাইল ফোন অথবা লেন্ড লাইন ফোন। আলাপের আইপি নম্বর শুরু হবে ০৯৬৯৬ দিয়ে এবং শেষের ছয়টি সংখ্যা হবে ব্যবহারকারীর বর্তমান ব্যাবহৃত মোবাইল নাম্বারের মত অবিকল।

আকর্ষনীয় কল রেটঃ
আপনারা অনেকেই জানেন বাংলাদেশের আইন অনুযায়ী বিটিসিএল দ্বারা নির্ধারিত কলের রেট হচ্ছে ৪৫ পয়সা প্রতি মিনিট। তবে কিছু কিছু কোম্পানির আইপি ফোনের কল রেট হচ্ছে ৩০ পয়সা (+১৫% ভ্যাট) থেকে ৪০ (+১৫% ভ্যাট) পয়সা প্রতি মিনিট হয়ে থাকে। তবে আলাপ কলিং অ্যাপের বর্তমান কল রেট ৩০ (+১৫% ভ্যাট) পয়সা প্রতি মিনিট বাংলাদেশের যেকোনো নাম্বারে। অ্যাপটি নামিয়ে নিবন্ধন করার সাথে সাথেই গ্রাহকরা ১৫ মিনিট ফ্রি টক টাইম পেয়ে যাবেন।

কল রেকর্ড

বিভিন্ন কারনে অনেক সময় আমাদের ফোন কল রেকর্ডের প্রয়োজন হয়। সাধারণত বেশিরভাগ ফোনে বিল্ট ইন রেকর্ড ফিচার থাকে আবার অনেক ফোনে থাকে না। তখন কল রেকর্ড করার জন্য থার্ডপার্টি অ্যাপ ইনস্টল করার প্রয়োজন হয়। তবে আলাপ অ্যাপে এ ঝামেলা হওয়ার কোন সুযোগ নেই। কারণ অ্যাপটিতে কল রেকর্ডিংয়ের সুবিধা রয়েছে। এ সুবিধাটি বিশেষ করে অ্যাপল ইউজারদের জন্য অনেক বেশ কার্যকরি হবে। এ অ্যাপটি ব্যবহার করতে হলে ইন্টারনেট সংযোগের প্রয়োজন পরবে। তবে ব্যবহারকারী যদি অফলাইনেও থাকে সে ক্ষেত্রে ব্যবহারকারীদের চিন্তার কোনো কারণ নেই। কেননা অফলাইনে থাকলেও আলাপ অ্যাপে আসা কল গুলো সরাসরি ব্যাবহারকারির ফোন নম্বরেই আসবে।

কনফারেন্স কল

আলাপ অ্যাপে ৫ জন ব্যাবহারকারি একসঙ্গে কনফারেন্স করতে পারবেন, এক সেকেন্ডের পালস সুবিধা থাকছে, আন্তর্জাতিক মানের ইমোজি এবং বিভিন্ন গ্রাফিক কনটেন্টসহ ক্ষুদে বার্তা পাঠানোর সুবিধা, ক্রিস্টাল ক্লিয়ার এইচডি মানের কল, কল ফরওয়ার্ড ফিচার, ভিডিও অন ডিমান্ড ও অনলাইনে রিচার্জ করার সুবিধাও থাকছে। গুগলের প্লে স্টোর এবং অ্যাপল অ্যাপ স্টোর থেকে আলাপ অ্যাপটি খুব সহজেই ডাউনলোড করা যাবে। অ্যাপটি ব্যবহার করতে গ্রাহকদের এনাআইডি বা জাতীয় পরিচয়পত্র এবং সেই সাথে ছবি দিয়ে আলাপ অ্যাপে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে।

হাই কোয়ালিটি কলঃ
এই অ্যাপে অডিও এবং ভিডিও কলের ক্ষেত্রে হাই রেজুলেশনের ক্রিস্টাল ক্লিয়ার ভয়েস পাওয়া যাবে। বিশেষ করে ভিডিও কলিংএর সময় খুবই ভাল পারফরমেন্স পাওয়া যাবে। যার ফলে আপনার বর্তমান কলিং অভিজ্ঞতায় কোনো প্রকার ভিগ্ন ঘটবে না।

রেফার এবং আয়ঃ
আপনি আপনার আলাপ অ্যাপ থেকে রেফারেল লিংকের মাধ্যমে আপনার ফ্রেন্ডসদের কে “আলাপ” অ্যাপে জয়েন করাতে পারলেই পেয়ে যাবেন বোনাস। আর এই রেফার করে পাওয়া বোনাসের মাধ্যমে কথা বলার সুবর্ণ সুযোগ।

আলাপ অ্যাপে কি ভাবে রেজিস্ট্রেশন করবেন

  • আলাপ অ্যাপ ব্যবহার করতে হলে প্রথমে অ্যানড্রয়েড ব্যবহারকারীদের গুগল প্লেস্টোর থেকে Alaap লিখে সার্চ করে অ্যাপটি ডাউনলোড করে ইনস্টল করতে হবে।
  • আর আইওএস ব্যবহারকারীদের ক্ষেত্রে অ্যাপল স্টোর থেকে Alaap লিখে সার্চ করে অ্যাপটি ডাউনলোড করে ইনস্টল করতে হবে।
আলাপ অ্যাপে কি ভাবে রেজিস্ট্রেশন করবেন
  • এরপর আপনি যে ফোন নম্বরটি দিয়ে আপনি অ্যাপে নিবন্ধন করতে চান, সে নম্বরটি লিখে ‘Continue’ বাটন চেপে ‘Ok’ তে চাপ দিন। যে নম্বরটি দিয়ে নিবন্ধন করেছেন সেই নাম্বারে একটি পিন কোড যাবে। সেই পিন কোডটি সংগ্রহ করে অ্যাপে বসিয়ে দিতে হবে।
  • এরপর জাতীয় পরিচয়পত্রের মাধ্যমে আলাপ অ্যাকাউন্ট ভেরিফাই করার জন্য ‘Next’  বাটনে চাপ দিতে হবে। এরপর জাতীয় পরিচয়পত্রের সামনের দিকের ছবি তুলতে ‘Scan the front side of NID card with camera’ লেখার নিচের অংশে থাকা ক্যামেরা বাটনে চাপ দিন। একইভাবে এন আইডি কার্ডের পেছনের অংশের ছবি তোলার জন্য ‘Scan the back side of NID card with camera’ লেখার নিচে থাকা ক্যামেরা বাটনে চাপ দিয়ে জাতীয় পরিচয়পত্রের পেছনের অংশের ছবি তুলুন।
  • ‘Scanned Information’ নামক পেজে এনআইডি কার্ডে থাকা তথ্যগুলো প্রদর্শিত হলে Next বাটনে  চাপ দিন।
  • পরের ধাপে Take a selfie পেজে এসে সেলফি তোলার জন্য ক্যামেরা বাটনে ক্লিক করে সেলফি তুলে ‘next’ বাটনে ক্লিক করুন। এরপর আপনার দেওয়া তথ্যগুলো যাচাই বাছাই প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে যাবে; অল্প কিছুক্ষণ অপেক্ষা করার পরে যাচাই প্রক্রিয়া শেষ হলে ‘Initialization’ প্রসেসের পর আলাপ অ্যাকাউন্ট ওপেন হয়ে যাবে।

রিচার্জ করতে হয় যেভাবে

আলাপ অ্যাপে রিচার্জ করতে হলে আপনাকে প্রথমে অ্যাপে প্রবেশ করে উপরের দিকে থাকা আইকন থেকে ‘Recharge’ অপশনে ক্লিক করতে হবে। তারপর রিচার্জ করার জন্য বিভিন্ন পেমেন্ট অপশন প্রদর্শিত হবে। সেখান থেকে আপনি যে মাধ্যমে পেমেন্ট করতে চান সেই মাধ্যম নির্বাচন করতে হবে। তারপর প্রয়োজনীয় ইনফরমেশন প্রদান করে রিচার্জ করতে পারবেন।

লেখাটি ভালো লাগলে সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন। কোনো জিজ্ঞাসা অথবা পরামর্শ থাকলে কমেন্ট করে জানিয়ে দিন।

বিডিটেকটিউনার

Share on:

আমি অঞ্জন, এই সাইটটির প্রতিষ্ঠাতা। এই ব্লগে টিপস & ট্রিকস, অনলাইন ইনকাম, কম্পিউটার সমস্যা সমাধান সহ আরো অনেক কিছুর উপর সঠিক ও নির্ভুল তথ্য দেওয়া হয়।

Leave a Comment