কীভাবে ইনস্টাগ্রামের মাধ্যমে অনলাইনে অর্থ উপার্জন করবেন

গত কয়েক বছরে আমাদের দেশ থেকে গুগলে সবেচেয়ে বেশী বার সার্চ করা কীওয়ার্ডের তালিকায় রয়েছে, কীভাবে অনলাইনে অর্থ উপার্জন করা যায়? তাহলে আপনারও যদি ঘরে বসে সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করে অর্থ উপার্জনের ইচ্ছা থাকে তাহলে আজকের এই আর্টিকেলের মাধ্যমে, আমরা আপনাদের সাথে অনলাইনে অর্থ উপার্জনের একটি পদ্ধতি সম্পর্কে আলোচনা করব। আপনাদের মধ্যে সম্ভবত বেশীরভাগ মানুষই হয়ত Instagram সম্পর্কে শুনেছেন । এমনকি আপনি হয়তো Instagram ব্যবহারও করছেন। কিন্তু আপনি কি জানেন যে, ইনস্টাগ্রাম থেকেও আপনারা অনলাইনে আয় করতে পারবেন! যদি না জেনে থাকেন তাহলে এই আর্টিকেলে আপনারা জানবেন কীভাবে ইনস্টাগ্রামের মাধ্যমে অনলাইনে অর্থ উপার্জন করবেন, কিভাবে ইনস্টাগ্রাম থেকে টাকা আয় করবেন বা ইনস্টাগ্রাম থেকে আয় করার উপায় কী?

ইনস্টাগ্রাম কি

Instagram হল বিশ্বের একটি জনপ্রিয় ফটো শেয়ারিং সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাপ্লিকেশন বা প্লাটফর্ম। আপনি যদি ইনস্টাগ্রামের জনপ্রিয়তা সম্পর্কে ধারনা পেতে চান তাহলে আপনাকে শুধু একটি কথাই বলব তা হল যে, বর্তমানে ইনস্টাগ্রামে বিশ্বের সব বড় বড় সেলিব্রিটিদের ব্যক্তিগত অ্যাকাউন্ট এবং পেজ রয়েছে। যেখানে তারা প্রতিদিন সক্রিয় থাকেন এবং সেখানে তারা প্রতিদিন নতুন নতুন পোস্ট বা ফটো আপলোড করেন। এছাড়াও, আপনার এবং আমাদের মতো কোটি কোটি সাধারণ মানুষের আজ ইনস্টাগ্রামে অ্যাকাউন্ট রয়েছে।

এছাড়াও আপনি Instagram এ আপনার নিজের জন্য অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে পারেন এবং আপনার ফটো পোস্ট করতে পারেন । সেই সাথে অন্য মানুষের ফটোতে লাইক ও কমেন্ট করতে পারেন। শুধু তাই নয়, ইনস্টাগ্রামে আপনারা ভিডিওও দেখতে পারবেন।

এখন প্রশ্ন হল , ইনস্টাগ্রাম থেকে টাকা আয় করতে কী করতে হবে ?

আপনি যদি ইনস্টাগ্রাম থেকে অর্থ উপার্জন করতে আগ্রহী হয়ে থাকেন তাহলে আমরা আপনাকে বলব যে, ইনস্টাগ্রাম থেকে টাকা ইনকাম করতে হলে, প্রথমে আপনাদের কিছু প্রস্তুতি নিতে হবে। যা নিচে দেওয়া হল –

ইনস্টাগ্রাম ফলোয়ারঃ ইনস্টাগ্রাম থেকে অর্থ উপার্জনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল আপনার ইন্সটাগ্রাম একাউন্টে অনেক বেশি ফলোয়ার থাকতে হবে। তবেই যেকোনো ব্র্যান্ড আপনাকে তাদের স্পন্সর পোস্ট দেবে অথবা একটি অ্যাফিলিয়েট লিঙ্ক দেবে । আপনার ইনস্টাগ্রাম পেজ বা প্রোফাইলে যত বেশী ফলোয়ার থাকবে আপনার ইনকাম হওয়ার সম্ভাবনাও তত বেশি হবে। সেজন্য আপনার ইন্সটাগ্রাম একাউন্টে যতটা সম্ভব ফলোয়ার বাড়ানোর চেষ্টা করা উচিত।

ফ্যান এনগেজমেন্টঃ আপনার ইন্সটাগ্রাম একাউন্টের ফলোয়ার বাড়ানোর পাশাপাশি, আপনাকে ইনস্টাগ্রামে আপনার ফলোয়ারদের সাথে একটি শক্তিশালী সম্পর্ক স্থাপন করতে হবে। কারণ, আপনি যখন আপনার ইনস্টাগ্রাম ফলোয়ারদের সাথে একটি দৃঢ় সম্পর্ক স্থাপন করবেন, তখন আপনার পোস্টের রিচ বাড়বে। এমন অবস্থায় আপনি যখন একটি ব্র্যান্ডের প্রচার করবেন বা একটি ব্র্যান্ডকে স্পন্সর করবেন, তখন আপনার ফলোয়াররা অবশ্যই সেই পোস্ট বা ব্র্যান্ডে আগ্রহ নেবে। যার কারণে আপনি যে ব্র্যান্ড বা স্পন্সর পোস্টটি প্রচার করেছেন তাতে আরও বেশি বিক্রি হবে এবং আপনার উপার্জনও বৃদ্ধি পাবে।

ব্যবহারকারীর আগ্রহঃ ইনস্টাগ্রামে একটি পেজ বা আপনার প্রোফাইল তৈরি করার আগে, আপনাকে খেয়াল রাখতে হবে যে, কোন ক্ষেত্রে আপনি আগ্রহী বা আপনি কোন ধরনের বিষয় নিয়ে কাজ করতে চান। আপনাকে একই ক্ষেত্র থেকে সম্পর্কিত বিষয় নির্বাচন করতে হবে যাতে আপনি ব্র্যান্ডের প্রচারের জন্য সর্বাধিক পরিমাণ স্পনসর পোস্ট বা অফার পেতে পারেন। এরফলে আপনি আরও বেশি পরিমাণ অর্থ উপার্জন করতে পারবেন।

ইনস্টাগ্রাম থেকে আয়ের জন্য যা প্রয়োজন

Instagram থেকে টাকা ইনকাম করার জন্য প্রথমেই আপনার একটি ইনস্টাগ্রাম আইডি তৈরি করতে হবে। তবে এই Instagram একাউন্টের জন্য একটি নির্দিষ্ট সেক্টর থাকতে হবে। অর্থাৎ আপনি যে ধরনের পণ্য বা সেবার মাধ্যমে Instagram থেকে টাকা ইনকাম করতে চান তার উপর ভিত্তি করে আপনার Instagram একাউন্ট ক্রিয়েট করতে হবে। বর্তমানে অনেক ধরনের জনপ্রিয় বিষয় বা ক্ষেত্র রয়েছে যেমন ফ্যাশন, ফুড, বিউটি টিপস, ট্রাভেল ইত্যাদি। এগুলোর মধ্যে আপনি যে ধরনের পণ্য বা সেবার মাধ্যমে ইনস্টাগ্রাম থেকে টাকা আয় করতে চান তার ওপর ভিত্তি করে আপনার Instagram একাউন্ট তৈরী করুন।


একই অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করে বিভিন্ন ধরনের পণ্য বা সেবা দেওয়ার চেয়ে একটি নির্দিষ্ট অ্যাকাউন্ট থেকে নির্দিষ্ট একটি সেবা প্রদান করলে ইনস্টাগ্রাম থেকে অধিক পরিমাণে টাকা ইনকাম করা সম্ভব। এর ফলে আপনার ইন্সটাগ্রাম ফলোয়ার্সদের কাছে আপনার অ্যাকাউন্টটি যথার্থ মনে হবে। আপনার ইন্সটাগ্রাম অ্যাকাউন্টের পাশাপাশি আপনার অ্যাকাউন্ট সম্পাদনা করার জন্য একটি ল্যাপটপ অথবা স্মার্টফোনের প্রয়োজন হবে। আর প্রয়োজন হবে ইন্টারনেট কানেকশন।

আরও পড়ুনঃ অনলাইনে ইনকাম করার সেরা ১৫ উপায়

ইনস্টাগ্রাম থেকে আয়

অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফর্ম যেমন- ফেসবুক টুইটার ইত্যাদির মতো ইনস্টাগ্রামও আপনাকে ইনকাম করার সুযোগ করে দিচ্ছে। আপনি হয়তো এর মধ্যেই দেখে থাকবেন যে, বর্তমানে ইনস্টাগ্রাম ব্যবহার করে অনেকেই ভাল পরিমাণ টাকা ইনকাম করছে। আপনারাও চাইলে ইনস্টাগ্রামের মাধ্যমে টাকা আয় করতে পারবেন। ইনস্টাগ্রাম থেকে অর্থোপার্জনের কয়েকটি উপায় নিচে দেওয়া হল –

ব্র্যান্ড স্পনসর

ইনস্টাগ্রাম অ্যাপ্লিকেশন এর মাধ্যমে অনলাইনে অর্থ উপার্জনের সবচেয়ে জনপ্রিয় উপায় হল ব্র্যান্ড স্পনসরশিপের মাধ্যমে ।অর্থাৎ একটি ব্র্যান্ডকে স্পন্সর করা। বর্তমানে, একজন ব্যক্তি যখন তার কোন নতুন ব্র্যান্ড বা পণ্য লঞ্চ করেন, তখন তিনি চান যে, তার ব্র্যান্ড বা পণ্যের তথ্য খুব অল্প সময়ের মধ্যে অনেক বেশি সংখ্যক মানুষের কাছে পৌঁছাতে পারে। যাতে লোকেরা তার ব্র্যান্ড সম্পর্কে জানে বা সেই সাথে তার পণ্য বেশি পরিমাণে বিক্রি হয়।

এই কারণেই নতুন এবং পুরাতন ব্র্যান্ডগুলি তাদের ব্র্যান্ডকে প্রচার করতে অনলাইন মার্কেটিং ব্যবহার করে। কারণ তারা জানেন যে, বর্তমানে বেশিরভাগ মানুষ ইন্টারনেটেই তাদের বেশীরভাগ সময় ব্যয় করে থাকে ।

আপনার ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইলে যদি অনেক বেশি ফলোয়ার থাকে বা আপনার ইনস্টাগ্রাম পেজে যদি বেশি ফলোয়ার থাকে তাহলে আপনি আপনার ইন্সটাগ্রাম প্রোফাইল বা পেজের সাহায্যে একজন ব্যক্তির ব্র্যান্ড বা পণ্য প্রচার করতে পারেন। এবং বিনিময়ে, আপনি সেই ব্যক্তি বা ব্র্যান্ড/কোম্পানীর কাছ থেকে যথেষ্ট পরিমাণ টাকা চার্জ করতে পারেন এবং ইনস্টাগ্রাম থেকে অর্থ উপার্জন করতে পারেন।

ইনস্টাগ্রামের মাধ্যমে ব্র্যান্ড স্পনসর করে অর্থ উপার্জন করতে, আপনার ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইল বা পেজে অনেক বেশি ফলোয়ার থাকতে হবে। এমন অবস্থায় ব্যক্তি বা কোম্পানিগুলো নিজে থেকেই আপনার সাথে যোগাযোগ করবে যারা তাদের ব্র্যান্ড বা পণ্যের প্রচার করতে চায়।

এই ধরণের একটি sponsor posts এর বিনিময়ে আপনারা ৫ থেকে ২০ ডলার পর্যন্ত টাকা আয় করতে পারবেন। আপনারা “paid sponsorship” খোঁজার জন্য গুগলে সার্চ করলে এই ধরনের অনেক পোর্টাল (portal) পেয়ে যাবেন। ifluenz.com এই ধরণের paid sponsors সার্চ করার জন্য সেরা ওয়েবসাইট। আপনারা এই ওয়েবসাইটে একাউন্ট তৈরি করে, বিভিন্ন sponsors দেড় সাথে আপনারা যুক্ত হতে পারবেন।

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং

বর্তমান সময়ে, অনেকেই অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে ভাল পরিমাণ অর্থ উপার্জন করছে। অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয় করার জন্য, আপনাকে বিশ্বের জনপ্রিয় এবং বিশ্বস্ত ওয়েবসাইটগুলিতে যেতে হবে এবং তাদের অ্যাফিলিয়েট প্রোগ্রামে একটি অ্যাকাউন্ট তৈরি করে তাদের সাথে যোগ দিতে হবে।

এর পরে আপনাকে অ্যাফিলিয়েট লিঙ্ক তৈরি করতে হবে এবং সেই অ্যাফিলিয়েট লিঙ্কটি বিভিন্ন জায়গায় শেয়ার বা প্রচার করতে হবে। এরপর কোন ব্যক্তি যদি আপনার শেয়ার করা অ্যাফিলিয়েট লিঙ্কে ক্লিক করে সেই ওয়েবসাইট থেকে কোন পন্য ক্রয় করে তাহলে আপনি কমিশন পাবেন।

সাধারণভাবে, বেশিরভাগ মানুষ হোয়াটসঅ্যাপ , ফেসবুক এবং অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া সাইটগুলিতে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং লিঙ্কগুলি শেয়ার করে। কারণ অনেকেই এই সোশ্যাল মিডিয়া সাইটগুলিতে তাদের সময় ব্যয় করে, যার কারণে অ্যাফিলিয়েট লিঙ্কে ক্লিক করার সম্ভাবনা খুব বেশি থাকে।

আপনি যখন আপনার অ্যাফিলিয়েট লিঙ্কটি সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করেন, তার পরে যদি কোনও ব্যক্তি এই লিঙ্কে ক্লিক করে কোনও পণ্য বা পরিষেবা কিনে থাকেন, তবে আপনি সেই ওয়েবসাইট বা সংস্থা থেকে প্রতিটি বিক্রিত পণ্যের উপর কমিশন পাবেন। যার অ্যাফিলিয়েট প্রোগ্রামে আপনি যোগ দিয়েছেন।

যাইহোক, আমরা আপনাকে বলে রাখি যে, আপনি ইনস্টাগ্রামে লিঙ্ক পোস্ট করতে পারবেন না। বরং, আপনি চাইলে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং ওয়েবসাইটের সাথে সংযোগ করতে পারেন এবং আপনার পোস্টে তাদের যেকোনো পণ্যের কুপন কোড যোগ করতে পারেন।

আপনি একটি ব্যানার তৈরি করতে পারেন এইভাবে যে, যখন একজন ব্যক্তি কুপন কোড ব্যবহার করে কিছু কিনবেন, তখন সেই ব্যক্তিও ছাড় পাবেন এবং আপনিও কমিশন পাবেন।

ছবি বিক্রি করুন

বেশিরভাগ লোক তাদের নতুন ছবি পোস্ট করার জন্য শুধুমাত্র Instagram ব্যবহার করে। কারণ, ছবি শেয়ার করার জন্যই এই প্লাটফর্মটি তৈরি করা হয়েছে।

কিন্তু অনেকেই আছেন যারা ফটোগ্রাফির খুব পছন্দ করেন এবং সেই কারণেই তারা যখন কোথাও ভালো জায়গায় ঘুরতে যান, তখন তারা তাদের স্মার্টফোন বা ডিএসএলআর ক্যামেরার মাধ্যমে বিভিন্ন অ্যাঙ্গেল থেকে ভালো ছবি তোলেন এবং সেই সব ছবি তারা তাদের ইন্সটাগ্রাম প্রোফাইলে পোস্ট করেন।

আপনারও যদি ফটোগ্রাফিতে আগ্রহ থাকে এবং আপনি জানেন কিভাবে ভালো ছবি তুলতে হয় বা আপনার কাছে ভালো ছবির সংগ্রহ থাকে, তাহলে আপনি ইনস্টাগ্রাম থেকে অর্থ উপার্জন করতে পারেন। এর জন্য, আপনাকে আপনার ভাল ছবিগুলি আপনার Instagram অ্যাকাউন্টে আপলোড করে বিজ্ঞাপন দিতে হবে।

যাইহোক, এর জন্য আপনাকে একটি জিনিস মাথায় রাখতে হবে, আপনি যখনই আপনার ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে কোনও ছবি আপলোড করবেন, তখন আপনাকে অবশ্যই আপনার ছবির সাথে ওয়াটারমার্ক যুক্ত করতে হবে বা ক্যাপশনে আপনার নাম লিখতে হবে যাতে অন্য কেউ আপনার ছবি ব্যবহার করতে না পারে।

যদি কোনো ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান আপনার ছবি পছন্দ করে, তাহলে সে আপনার ছবি কেনার জন্য আপনার সাথে যোগাযোগ করবে, তারপর আপনি তার সাথে ডিল করতে পারবেন এবং ফটো বিক্রি করে আয় করতে পারবেন।

অন্যদের ইনস্টাগ্রাম একাউন্ট প্রোমোট করুন

বর্তমানে অনেক Instagram ব্যবহারকারী আছেন যারা তাদের নিজের নতুন ইনস্টাগ্রাম একাউন্ট প্রোমোট বা প্রচার করার জন্য, পপুলার ও জনপ্রিয় একাউন্টের ওনারদেরকে টাকা দিয়ে তাদের ইন্সটাগ্রাম একাউন্ট প্রোমোট করেন। তাই, আপনার ইন্সটা একাউন্টে যদি বেশী পরিমানে ফলোয়ার্স থাকে, তাহলে এইরকম নতুন নতুন একাউন্ট আপনার একাউন্টের মাধ্যমে প্রোমোট করে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

এইভাবে প্রত্যেক একাউন্ট প্রোমোট করার জন্য আপনারা প্রায় ১০ থেকে ২০ ডলার পর্যন্ত টাকা ইনকাম করতে পারবেন। যারা, এই ভাবে নিজেদের একাউন্ট প্রোমোট করতে চান তারা নিজে থেকেই আপনার সাথে contact করবেন। তবে সে জন্য, আপনার Instagram account অবশ্যই popular বা জনপ্রিয় হতে হবে। সোজা কথায় বলতে গেলে, আপনার একাউন্টে বেশী পরিমানে followers থাকতে হবে।

পণ্য বিক্রি করুন

আপনার যদি নিজের কোন ব্যবসা বা পণ্য থাকে এবং আপনি সেই পণ্যটি অনলাইনে বিক্রি করতে চান , তাহলে আপনি ইনস্টাগ্রামের সাহায্যে তা করতে পারেন এবং সেখান থেকে টাকা ইনকাম করতে পারেন।

আপনি যে পণ্যটি অনলাইনে বিক্রি করতে চান, প্রথমে এটির একটি ছবি তুলুন এবং আপনার ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট থেকে সেই ছবি আপলোড করুন। এরপর ডেসক্রিপ্সশন সেকশনে পণ্যের বিবরণ এবং পণ্যের মূল্য উল্লেখ করুন।

এটি করার মাধ্যমে, যদি কেউ আপনার পণ্য পছন্দ করে, তবে সে অবশ্যই আপনার পণ্য কেনার জন্য আপনার সাথে যোগাযোগ করবে। এরপর আপনি আপনার পণ্য বিক্রি করুন এবং এইভাবে আপনি ইনস্টাগ্রাম থেকে অনলাইনে অর্থ উপার্জন করতে পারেন।

আপনারা হয়তো ইতিমধ্যেই দেখেছেন যে বর্তমানে অনেক মানুষ শাড়ী, জামা এবং অন্যান্য অনেক ধরনের কাপড় বিভিন্ন social media platform এর দ্বারা প্রচার করছে এবং বিক্রি করছে।

ঠিক একই ভাবে আপনার যদি একটি “Instagram account” থাকে এবং সেটাতে যদি বেশী পরিমাণে “followers” থাকে, তাহলে আপনিও এইরকম বিভিন্ন product বা সার্ভিস আপনার ইন্সটাগ্রামের মাধ্যমে marketing করতে পারবেন। আর এই ভাবেই ধীরে ধীরে আপনার একটি সফল অনলাইন বিসনেস তৈরি করে নিতে পারবেন।

আপনার একাউন্টে যত বেশী followers হবে, তত বেশি লোক আপনার products সম্পর্কে জানতে পারবে। এর ফলে, আপনার পণ্য বেশি পরিমান মানুষের মধ্যে প্রচার হবে এবং সেই সাথে আপনার পন্য বা সার্ভিস বিক্রি হওয়ার সুযোগও বেড়ে যাবে।ইন্টারনেটের মাধ্যমে, আপনি আপনারা যেকোনো পণ্য বা সার্ভিস অনলাইন বিক্রি করে দিতে পারবেন।

আরও পড়ুনঃ কিভাবে ঘরে বসে অনলাইনে ইনকাম করবেন

ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট বিক্রি করে

বিশ্বে এমন অনেক লোক রয়েছে যারা ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট তৈরি করে খুব ভাল দামে বিক্রি করে এবং তারা তাদের তৈরি করা এই সব ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট বিক্রি করে ভাল পরিমাণ টাকা ইনকাম করে।

তাই আপনারাও চাইলে ইনস্টাগ্রাম একাউন্ট তৈরি করে সেই অ্যাকাউন্টে ফলোয়ার বৃদ্ধি করে সেই একাউন্ট ভাল দামে বিক্রি করতে পারবেন। এখানে একটা বিষয় মনে রাখবেন যে, আপনার ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টের ফলোয়ার যত বেশী হবে আপনার ইনস্টাগ্রাম একাউন্টের দামও তত বেশী হবে।

তাই ইন্সটাগ্রাম একাউন্ট বিক্রি করে টাকা ইনকাম করতে চাইলে প্রথমে ইনস্টাগ্রাম একাউন্ট তৈরি করে প্রথমে সেটির ফলোয়ার বৃদ্ধি করুন এবং ফলোয়ার বাড়ানোর পরে, আপনার ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টটি বিক্রি করে টাকা ইনকাম করুন।

Instagram এ followers কিভাবে বাড়াবেন ?

Instagram থেকে ইনকাম করার জন্য প্রথমে আপনাকে একজন “Instagram influencer” হতে হবে। Instagram influencer বলতে বোঝায়, যারা যেকোনো একটি বিশেষ বা নির্দিষ্ট বিষয় বা নিশ নিয়ে অনলাইনে কন্টেন্ট ক্রিয়েট করেন এবং সেই কন্টেন্ট এর মাধ্যমে নিজের audience বা followers বৃদ্ধি করেন। প্রথমে আপনাকে একটি নিশ নিয়ে একটি ইনস্টাগ্রাম একাউন্ট তৈরি করতে হবে এবং সেই নিশ রিলেটেড কনটেন্ট পাবলিশ করতে হবে।

একাউন্ট তৈরি করার পর নিচে দেয়া নিয়ম গুলি অনুসরন করলে আপনারা খুব দ্রুত আপনার ইন্সটাগ্রাম একাউন্টের ফলোয়ার বাড়াতে পারবেন –

Attractive profile bio তৈরি করুনঃ ইন্সটাগ্রাম একাউন্ট তৈরি করার পর, সবার প্রথমে একাউন্টের “Profile bio” আকর্ষণীও করে তৈরি করুন। প্রোফাইলের bio এমন ভাবে লিখবেন, যাতে মানুষ সেটা পরে আপনার প্রোফাইল সম্পর্কে একটি ভালো ধারনা পায় এবং আপনার প্রফাইলটি কাজের প্রোফাইল বলে মনে হয়। প্রোফাইল bio তে যেই বিষয় বা নিশ টার্গেট করে প্রোফাইল তৈরি করেছেন সেই বিষয় বা নিশ অবশ্যই “Hashtags (#)” হিসেবে ব্যবহার করুন। তাছাড়া, প্রোফাইলে email id এবং contact details অবশ্যই সঠিক ভাবে লিখবেন।

নিয়মিত কন্টেন্ট পাবলিশ করুনঃ আমাদের মধ্যে অনেকের মনেই এই প্রশ্ন রয়েছে যে, কিভাবে ইনস্টাগ্রাম একাউন্টের ফলোয়ার্স বাড়ানো যায়। তবে, সহজে ইনস্টাগ্রাম একাউন্টের ফলোয়ার্স বাড়ানোর তেমন কোনো শর্টকাট নিয়ম নেই। তবে সাধারণ ভাবে নিয়মিত কাজ করলে ধীরে ধীরে আপনার একাউন্টের ফলোয়ার বৃদ্ধি পাবে। আপনার একাউন্টে নিয়মিত ভালো ভালো photos পাবলিশ করতে হবে। এতে করে, আপনি আপনার ইন্সটাগ্রাম একাউন্টে আপনার followers বা audience দেড় ধরে রাখতে পারবেন এবং সেই সাথে নতুন নতুন ইউজাররাও সহজেই আপনাকে ফলো করবে। প্রত্যেক দিন আপনার একাউন্টে ২ থেকে ৩ টি করে ছবি, স্টোরি এবং কমপক্ষে ১ টি ভিডিও পাবলিশ করবেন। এভাবে নিয়মিত কন্টেন্ট পাবলিশ করলে খুব দ্রুত আপনার ইন্সটাগ্রাম একাউন্টের ফলোয়ার বৃদ্ধি পাবে ।

হাই কোয়ালিটি ফটো আপলোড করুনঃ আপনার ইন্সটাগ্রামে সব সময় হাই কোয়ালিটির ছবি আপলোড করবেন। যেকোনো ছবি আপনার একাউন্টে আপলোড করার আগে অবশ্যই সেটা ভালো করে এডিট করে নিবেন। কারণ, এডিটিং এর মাধ্যমে আপনি আপনার যেকোনো ছবিকে আরও বেশী আকর্ষণীয় এবং সুন্দর করে তুলতে পারবেন।

সবসময় হ্যাস ট্যাগ ব্যবহার করুনঃ যেকোনো সোশ্যাল মিডিয়া নেটওয়ার্ক যেমন, ফেসবুক, Twitter, Instagram বা LinkedIn সবগুলোতেই # (hashtags) আপনার পোস্টের reach বাড়াতে অনেক সাহায্য করে। আপনি যত বেশি hashtags ব্যবহার করবেন, ঠিক ততোটাই বেশি মানুষের কাছে আপনার কনটেন্ট বা পোস্ট শো করবে। Instagram এ আপনি একটি picture বা images এ সর্বোচ্চ ৩০ টি hashtags ব্যবহার করতে পারবেন। তবে সব সময় আপনার কন্টেন্টের বিষয়ের সাথে রিলেটেড hashtags ব্যবহার করবেন।

ফলোয়ারদের সাথে রিলেশন বিল্ড আপ করুনঃ আপনার ইন্সটাগ্রামে যদি লক্ষ লক্ষ followers থাকে কিন্তু তাদের সাথে আপনার কোন engagement না থাকে, তাহলে কিন্তু সেই ইনস্টাগ্রাম একাউন্টের কোনো value থাকবে না। তাই, Instagram এ followers বাড়ানোর সাথে সাথে, নিজের followers দের সাথে রিলেশন বিল্ড আপ করার চেষ্টা করুন। নিয়মিত ভালো ভালো images বা photos পাবলিশ করার সাথে সাথে, প্রতি সপ্তাহে অবশ্যই একটি “live session” করবেন। এতে, অনেক সহজে followers দেড় সাথে একটি ভালো সম্পর্ক তৈরি হবে। প্রোফাইলের প্রত্যেক কমেন্টে অবশ্যই “reply” করবেন। বেশী পরিমানে “Instagram stories” পাবলিশ করুন।

শেষ কথা

আজকের এই আর্টিকেল আমরা আপনাদের ইনস্টাগ্রাম থেকে অর্থ উপার্জনের কিছু উপায় সম্পর্কে বলেছি। আপনি যদি এই পদ্ধতিগুলির যে কোনও একটি সঠিকভাবে এবং সম্পূর্ণ পরিশ্রমের সাথে ব্যবহার করেন তবে আপনি অবশ্যই ইনস্টাগ্রাম থেকে অনলাইনে অর্থ উপার্জন করতে সক্ষম হবেন।

আর্টিকেলটি নিয়ে যে কোন ধরনের প্রশ্ন বা মন্তব্য থাকলে কমেন্ট সেকশনে জানান।

ধন্যবাদ ।

Share on:

আমি অঞ্জন, এই সাইটটির প্রতিষ্ঠাতা। এই ব্লগে টিপস & ট্রিকস, অনলাইন ইনকাম, কম্পিউটার সমস্যা সমাধান সহ আরো অনেক কিছুর উপর সঠিক ও নির্ভুল তথ্য দেওয়া হয়।

Leave a Comment