জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড

বাংলাদেশের সকল নাগরিকের জন্য Birth Certificate / জন্ম নিবন্ধন কার্ড থাকা আবশ্যক । তবে আমাদের অনেকের কাছেই জন্ম নিবন্ধন সার্টিফিকেট বা কার্ড নেই । যাদের কাছে জন্ম নিবন্ধন সার্টিফিকেট নেই তারা খুব সহজেই ঘরে বসে অনলাইনের মাধ্যমে জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড করে নিতে পারেন । আজকের এই আর্টিকেলের মাধ্যমে আপনারা জন্ম নিবন্ধেন এর জন্য কিভাবে আবেদন করবেন, জন্ম নিবন্ধন যাচাই, জন্ম নিবন্ধন সংশোধন, Jonmo nibondhon সংশোধন ফি কত টাকা এবং জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড কিভাবে করবেন ইত্যাদি সকল বিষয় জানতে পারবেন।

বর্তমানে ডিজিটাল জন্ম নিবন্ধন চেক করা বা অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করা খুবই সহজ। অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করতে হলে যার জন্ম নিবন্ধন চেক করতে  চান তার জন্ম নিবন্ধনের নাম্বার ও জন্ম তারিখ জানা থাকতে হবে । আর এই ২ টি জিনিস জানা থাকলে  আপনি খুব সহজেই অনলাইন জন্ম নিবন্ধন যাচাই করতে পারবেন।

জন্ম নিবন্ধন কি?

জন্ম নিবন্ধন বলতে জন্ম এবং মৃত্যুর নিবন্ধন আইনকে বোঝায়। যে কোন মানুষের জন্ম সম্পর্কিত সকল প্রয়োজনীয় তথ্য (নাম, লিঙ্গ, জন্মের তারিখ, স্থান, পিতা মাতার নাম, তাদের জাতীয়তা এবং স্থায়ী ঠিকানা) যে সনদে উল্লেখ করা থাকে, তাকে জন্ম সনদ বা Birth Certificate বলা হয় ।

জন্ম নিবন্ধন কি কি কাজে প্রয়োজন?

  • পাসপোর্ট ইস্যু করার ক্ষেত্রে
  • শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তির জন্য জন্ম নিবন্ধন প্রয়োজন
  • জাতীয় পরিচয় পত্র পাওয়ার জন্য জন্ম নিবন্ধন প্রয়োজন
  • ট্রেড লাইসেন্স পাওয়ার জন্য
  • বাড়ির ডিজাইন অনুমোদনের জন্য
  • গাড়ির রেজিষ্ট্রেশন করার জন্য
  • আমদানী / রপ্তানি লাইসেন্স করার ক্ষেত্রে
  • বিবাহ রেজিস্টার করার জন্য 
  • ড্রাইভিং লাইসেন্স ইস্যু করার ক্ষেত্রে
  • ভোটার তালিকা প্রণয়নের জন্য 
  • ব্যাংক একাউন্ট ওপেন করার জন্য
  • সরকারী, বেসরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত যে কোন প্রতিষ্ঠানে নিয়োগের ক্ষেত্রে
  • জমি /জায়গা রেজিস্ট্রেশন করার জন্য
  • গ্যাস, পানি, টেলিফোন, ইন্টারনেট ও বিদ্যুৎ সংযোগ নেয়ার জন্য
  • টিআইএন সার্টিফিকেট বা ট্যাক্স আইডেন্টিফিকেশন নাম্বার পাওয়ার ক্ষেত্রে
  • ঠিকাদারি লাইসেন্স পাওয়ার জন্য

জন্ম নিবন্ধন সনদ এর জন্য কি কি কাগজ পত্র প্রয়োজন?

জন্ম নিবন্ধন সনদ পাওয়ার জন্য অল্প কিছু ডকুমেন্টস বা কাগজপত্রের দরকার হয়। যে ব্যক্তির জন্ম সনদ প্রয়োজন তিনি যদি কোন হসপিটাল বা ক্লিনিকে জন্মগ্রহণ করে থাকেন তাহলে সেই হসপিটাল বা ক্লিনিকের সার্টিফিকেট/ছাড়পত্র প্রয়োজন হবে। এছাড়াও এস.এস.সি সার্টিফিকেটের ফটোকপি, পাসপোর্টের ফটোকপি, আইডি কার্ডের কপি বা এলাকার জনপ্রতিনিধির (ওয়ার্ডের কমিশনার, ইউনিয়ন বা পৌরসভার চেয়ারম্যান) দ্বারা প্রদত্ত নাগরিকত্ব সার্টিফিকেটের এর ফটোকপি ব্যবহার করেও জন্ম নিবন্ধন সনদ পাওয়া যায়।

শিশুর জন্ম নিবন্ধনের জন্য কি কি কাগজ পত্র প্রয়োজন?

  • শিশুর টিকা Card
  • ডিগ্রিধারী ডাক্তারের প্রত্যয়ন প্রত্র
  • পিতা/মাতার National আইডি কার্ড
  • ইউনিয়ন পরিষদের ক্ষেত্রে চেয়ারম্যান/ওয়ার্ড কমিশনার/মেম্বার এর ভোটার আইডির নাম ও নম্বর অথবা জন্ম নিবন্ধনের নম্বর দরকার হবে ।

অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন যাচাই

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড অথবা অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করার জন্য সবার প্রথমে আপনাকে বাংলাদেশ সরকারের অনলাইন জন্ম নিবন্ধন বা Online BRIS এর ওয়েবসাইটে ঢুকতে হবে। Online BRIS এর ওয়েবসাইটে প্রবেশ করার জন্য এই লিংকে চাপ দিন । লিঙ্কে চাপ দেয়ার সাথে সাথে নিচের ছবির মত পেইজ দেখতে পাবেন ।

  • অনলাইন জন্ম নিবন্ধন যাচাই করার জন্য Birth Reg Number বক্সে যার জন্ম নিবন্ধন তথ্য যাচাই বা চেক করতে চান, তার জন্ম নিবন্ধন সনদে এ থাকা ১৭ সংখ্যার জন্ম নিবন্ধন নাম্বারটি প্রদান করুন ।
  • এরপর Date of Birth বক্সে যার জন্ম নিবন্ধন তথ্য যাচাই করতে চান, তার জন্ম তারিখ প্রদান করুন
  • কারো জন্ম তারিখ যদি ১৯৯২ সালের জুন মাসের ২ তারিখ হয়, তবে ডেট অফ বার্থ বক্সটিতে 1992-06-02 এই ফরম্যাটে লিখতে হবে
  • উপরের দুইটি বক্সে সঠিক তথ্য প্রদান করার পর The answer is এর ঘরে সঠিক উত্তরটি লিখে Search বাটনে ক্লিক করুন
  • Search বাটনে ক্লিক করার পর যার জন্ম নিবন্ধন চেক করতে চান, তার জন্ম নিবন্ধনে থাকা ইনফরমেশন গুলো স্ক্রিনে দেখতে পাবেন

  • স্ক্রিনে প্রদর্শিত ইনফরমেশন গুলো সঠিক কিনা তা যাচাই করে নিন
  • যদি Search বাটনে ক্লিক করার পর Matching Birth Records Not Found লেখাটি স্ক্রিনে প্রদর্শিত হয়, তাহলে বুঝবেন জন্ম নিবন্ধন নাম্বার বা জন্ম তারিখ যেকোনো একটিতে ভূল তথ্য দেয়া হয়েছে।

উপরে উল্লেখিত ধাপ গুলো সঠিকভাবে অনুসরণ করে থাকলে আপনি যার জন্ম নিবন্ধন যাচাই করতে চান, তার জন্ম নিবন্ধন এর সকল তথ্য পেয়ে যাবেন। 

আরও পড়ুনঃ ড্রাইভিং লাইসেন্স হয়েছে কিনা জানার পদ্ধতি ২০২১

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড করার জন্য উপরের ছবিটি স্ক্রিনে আসার পর আপনার কম্পিউটারের কি বোর্ড থেকে প্রিন্ট কমান্ড (ctrl+P) দিয়ে হার্ড কপি প্রিন্ট করে নিন।

এছাড়া বর্তমানে জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড করার অন্য কোন পদ্ধতি নেই। এভাবে আপনি online birth সার্টিফিকেট চেক ও সংরক্ষন করতে পারবেন।

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার নিয়ম

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার জন্য প্রথমে এই লিঙ্কে প্রবেশ করুন। লিঙ্কে ক্লিক করার পর আপনার কম্পিউটার স্ক্রিনে “জন্ম তথ্য সংশোধনের জন্য আবেদন” নামে একটি পেজ ওপেন হবে। জন্ম তথ্য সংশোধনের জন্য আবেদন পেজে যাওয়ার পর জন্ম নিবন্ধন নম্বর এবং জন্ম তারিখ নামে দুইটি ফাঁকা ঘর দেখতে পাবেন।

বক্সে জন্ম নিবন্ধন নাম্বার ও জন্ম সনদে থাকা জন্ম তারিখ লিখে অনুসন্ধান বাটনে ক্লিক করুন। জন্ম নিবন্ধন নাম্বার ও জন্ম তারিখ সঠিক থাকলে পরবর্তী পেজে জন্ম সনদ সম্পর্কিত সকল তথ্য দেখতে পাবেন।

এরপর জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার জন্য নির্বাচন করুন বাটনে ক্লিক করুন। পরের ধাপ গুলোতে সঠিক তথ্য দিয়ে সবগুলো বক্স পুরন করুন। জন্ম নিবন্ধন সংশোধন এর ওয়েবসাইটে সঠিক ইনফরমেশন দেওয়ার পর জন্ম নিবন্ধন সংশোধনের জন্য প্রয়োজনীয় তথ্য স্ক্রিনে দেখতে পাবেন। সেই সকল তথ্যের উপর ভিত্তি করে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন এর জন্য আবেদন করতে পারবেন।

জন্ম সনদের তথ্য সংশোধনের শর্ত ও নিয়মাবলি

জন্ম সনদে থাকা ইনফরমেশনে ভূল ত্রুটি থাকলে জন্ম সনদ সংশোধন করার দরকার হয়। জন্ম সনদের তথ্য সংশোধন করার জন্য কিছু শর্ত ও নিয়মাবলি রয়েছে। যেমনঃ

  • যদি পিতা বা মাতার নাম সংশোধনের দরকার হয়, সেক্ষেত্রে পিতা বা মাতার জন্ম নিবন্ধন Number থাকলে প্রথমে তাদের জন্ম নিবন্ধন Number দিয়ে জন্ম নিবন্ধন ইনফরমেশন সংশোধন করার জন্য আবেদন করে তাদের নাম সংশোধন করতে হবে।
  • পিতা বা মাতার যদি জন্ম নিবন্ধন নম্বর না থাকে এবং জন্ম তারিখ ০১/০১/২০০০ এর আগে হয়, তাহলে জন্ম নিবন্ধন ইনফরমেশন বা তথ্য সংশোধন আবেদন করার সময় আপনার পিতা অথবা মাতার নাম সংশোধন করা যাবে। সেক্ষেত্রে পিতা/মাতা মারা গিয়ে থাকলেও তাদের মৃত্যুর কোন প্রমাণ প্রদর্শন করতে হবে না
  • পিতা বা মাতার jonmo nibondhon Number না থাকলে এবং জন্ম তারিখ ০১/০১/২০০০ এর পরে হলে এবং পিতা বা মাতা মৃত হলে জন্ম নিবন্ধন ইনফরমেশন বা তথ্য সংশোধন আবেদন করার সময় পিতা বা মাতার নাম সংশোধন করা যাবে। সেক্ষেত্রে পিতা বা মাতার মৃত্যুর প্রমাণপত্র অবশ্যই দেখাতে হবে।

আরও পড়ুনঃ ই-পাসপোর্ট আবেদনের নিয়ম ২০২১

অনলাইন জন্ম নিবন্ধন আবেদন করার নিয়ম

অনলাইন জন্ম নিবন্ধন আবেদন করার জন্য এই লিঙ্কে চাপ দিন। লিঙ্কে ক্লিক করার পর “নতুন জন্ম নিবন্ধনের জন্য আবেদন” নামে একটি পেজ দেখতে পাবেন।

Jonmo nibondhon সনদ আপনার কোন ঠিকানার অফিস (জন্ম স্থান, স্থায়ী ঠিকানা, বর্তমান ঠিকানা) থেকে সংগ্রহ করতে চান সেটা সিলেক্ট করে পরবর্তী বাটনে ক্লিক করুন। জন্মস্থান, স্থায়ী ঠিকানা অথবা বর্তমান ঠিকানা এই দিন জায়গা থেকে জন্ম নিবন্ধন সনদ কালেক্ট করা যাবে। পরের ধাপে প্রদর্শিত পেজে দেওয়া সকল ইনফরমেশন (নাম ইংরেজি এবং বাংলায়, জন্মতারিখ, লিঙ্গ, পিতা মাতার কততম সন্তান, ঠিকানা ইত্যাদি) সাবধানতার সঙ্গে সঠিকভাবে পূরণ করুন। এভাবেই আপনি অনলাইন জন্ম নিবন্ধনের জন্য আবেদন করতে পারবেন।

অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন আবেদন সম্পর্কিত কিছু নির্দেশনা নিচে দেওয়া হল-

  • অনলাইন জন্ম নিবন্ধন আবেদন ফর্ম প্রথমে বাংলায় এবং পরে ইংরেজিতে পূরণ করা পর প্রয়োজনীয় সংশোধন করে সংরক্ষণ বোতামে চাপ দিন।
  • সংরক্ষণ বাটনে চাপ দেয়ার সাথে সাথে আবেদন পত্রটি সংশ্লিষ্ট নিবন্ধক কার্যালয়ে ট্র্যান্সফার হয়ে যাবে, আবেদনকারীর আর কোন রকম সংশোধন করার সুযোগ থাকবে না ।
  • নেক্সট ধাপে প্রিন্ট বাটনে ক্লিক করলে আবেদন পত্রের মুদ্রিত কপি পেয়ে যাবেন
  • সনদ হাতে পাওয়ার জন্য ১৫ দিনের মধ্যে উক্ত আবেদন পত্রে উল্লিখিত প্রত্যয়ন পত্র সংগ্রহ করে কিছু কিছু ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় প্রমাণপত্রের সত্যায়িত কপিসহ জন্ম নিবন্ধক অফিসে যোগাযোগ করতে হবে।

Jonmo Nibondhon আবেদনের বর্তমান অবস্থা

অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন আবেদনের বর্তমান অবস্থা জানার জন্য এখানে ক্লিক করুন। ক্লিক করার পরে “আবেদনপত্রের অবস্থা” নামে একটি পেজ ওপেন হবে।

পরের ধাপে প্রথমে আবেদনপত্রের ধরন নির্বাচন করে, আবেদনের সময় পাওয়া অ্যাপ্লিকেশন আইডি ও জন্মতারিখ প্রদান করে “দেখুন” বাটনে ক্লিক করলে জন্ম নিবন্ধন আবেদনের বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে সব ধরণের ইনফরমেশন দেখতে পাবেন।

জন্ম নিবন্ধন ফরম কিভাবে ডাউনলোড করব

সংশ্লিষ্ট নিবন্ধকের কার্যালয় থেকে অথবা br.lgd.gov.bd ওয়েবসাইট থেকে জন্ম নিবন্ধন ফর্ম Download করা যাবে। জন্ম নিবন্ধন ফর্ম পিডিএফ (PDF) আকারে Download করতে এখানে ক্লিক করুন।

জন্ম নিবন্ধন করতে কত টাকা খরচ হয়

বিষয়

ফিসের পরিমান (টাকা)

দেশে বিদেশে
জন্ম অথবা মৃত্যু হওয়ার ৪৫ (পঁয়তাল্লিশ) দিনের মধ্যে কোন ব্যক্তির জন্ম বা মৃত্যু নিবন্ধন
ফ্রি
ফ্রি
জন্ম হওয়া বা মারা যাবার ৪৫ দিন পর থেকে ৫ (পাঁচ) বছরের মধ্যে কোন ব্যক্তির জন্ম অথবা মৃত্যু নিবন্ধন করলে
১০০/- টাকা
২ মার্কিন ডলার
জন্ম হওয়া বা মারা যাবার ৫ বছর পরে কোন ব্যক্তির জন্ম অথবা মৃত্যু নিবন্ধন করলে
২০০/- টাকা
৪ মার্কিন ডলার
জন্ম তারিখ সংশোধন করার জন্য আবেদন ফি
৫০০/- টাকা
১০ মার্কিন ডলার
জন্ম তারিখ ছাড়া নাম, পিতা অথবা মাতার নাম, ঠিকানা ইত্যাদি বিভিন্ন তথ্য সংশোধন করার জন্য আবেদন ফি
৫০০/- টাকা
১০ মার্কিন ডলার
বাংলা ও ইংরেজি দুই ভাষায় মূল সনদ বা তথ্য সংশোধন করার পর সার্টিফিকেটের কপি সরবরাহ
১০০/- টাকা
২ মার্কিন ডলার
বাংলা এবং ইংরেজি ২ ভাষায় সনদের নকল সরবরাহ
১০০/- টাকা
২ মার্কিন ডলার

 

শেষ কথা

আজকের এই আর্টিকেলে আমরা আপনাদের সাথে, অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন যাচাই, অনলাইন jonmo nibondhon সংশোধন, জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড, jonmo nibondhon করতে কত টাকা খরচ হয় ইত্যাদি তথ্য গুলো নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করলাম। আর্টিকেলটি সম্পর্কে কোন মতামত থাকলে অবশ্যই আমাদের কমেন্ট করে জানান।

Share on:

আমি অঞ্জন, এই সাইটটির প্রতিষ্ঠাতা। এই ব্লগে টিপস & ট্রিকস, অনলাইন ইনকাম, কম্পিউটার সমস্যা সমাধান সহ আরো অনেক কিছুর উপর সঠিক ও নির্ভুল তথ্য দেওয়া হয়।

Leave a Comment