ল্যাপটপ, পিসির জন্য সেরা অ্যান্টিভাইরাস সফটওয়্যার

কোনো অ্যান্টিভাইরাস সফ্টওয়্যার ছাড়া পিসি বা ল্যাপটপ চালানোর অর্থ হল আপনি আপনার কম্পিউটারে অনেক ধরনের বিপজ্জনক ভাইরাস হোস্ট করছেন। এটি আপনার কম্পিউটারকে ধীর করে দেবে। এবং কিছু ভাইরাস এতটাই বিপজ্জনক যে তারা আপনার কম্পিউটারকে ধ্বংস করে দিতে পারে। তাই আজকের আর্টিকেলে আমরা আপনার পিসির জন্য কিছু সেরা অ্যান্টিভাইরাস সফটওয়্যার নিয়ে আলোচনা করব।

অ্যান্টিভাইরাস সফটওয়্যার কি

অ্যান্টিভাইরাস সফ্টওয়্যার হল এমন এক ধরনের প্রোগ্রাম যা আপনার কম্পিউটারে লুকানো অনেক ধরনের ভাইরাস খুঁজে বের করে এবং তারপর আপনার কম্পিউটার থেকে সেগুলোকে মুছে দেয়। এমনিভাবে, বাজারে অনেক ধরনের অ্যান্টিভাইরাস সফটওয়্যার রয়েছে, তবে এখানে আমরা এমন কিছু অ্যান্টিভাইরাস সম্পর্কে কথা বলব যা সবচেয়ে শক্তিশালী, যার সামনে কোনও ভাইরাস টিকে থাকতে পারে না ।

সেরা অ্যান্টিভাইরাস সফটওয়্যার

বর্তমানে সেরা কিছু অ্যান্টিভাইরাস সফটওয়্যারের তালিকা নিচে দেওয়া হল –

বিটডিফেন্ডার

আপনি যদি আপনার পিসি বা ল্যাপটপে সেরা অ্যান্টিভাইরাস ইনস্টল করতে চান তবে বিটডিফেন্ডার সেরা অ্যান্টিভাইরাস গুলির মধ্যে একটি। এই অ্যান্টিভাইরাস আপনাকে যেকোনো ধরনের ভাইরাস, ম্যালওয়্যার, অনলাইন হ্যাকিং সমস্যা থেকে নিরাপদ রাখবে, তা অনলাইন হোক বা অফলাইন । Bitdefender হল একটি উন্নত প্রযুক্তির অ্যান্টিভাইরাস সফটওয়্যার যা আপনাকে সব ধরনের নিরাপত্তা প্রদান করে। আপনার ব্যবসার কাজের জন্য যদি আপনার একটি উচ্চ সুরক্ষিত অ্যান্টিভাইরাস প্রয়োজন হয় তবে বিটডিফেন্ডার হবে আপনার জন্য সেরা অ্যান্টিভাইরাস। এতে দুই ধরনের পণ্য রয়েছে  বিটডিফেন্ডার অ্যান্টিভাইরাস প্লাস এবং  বিটডিফেন্ডার ইন্টারনেট সিকিউরিটি ।

আপনারা এই লিংক থেকে বিটডিফেন্ডার অ্যান্টিভাইরাস সফটওয়্যারটি কিনতে পারবেন।

আরও পড়ুনঃ কম্পিউটারে কতগুলো RAM স্লট ফাঁকা রয়েছে তা কিভাবে চেক করবেন

ক্যাসপারস্কি টোটাল সিকিউরিটি

ক্যাসপারস্কি টোটাল সিকিউরিটি হল এমন একটি সফটওয়্যার যা সর্বাত্মক সুরক্ষা প্রদান করে। আপনার যদি একটি সফটওয়্যারে আপনার কম্পিউটারের অ্যান্টিভাইরাস, ফায়ারওয়াল নিরাপত্তা, কিড-সেফ , পাসওয়ার্ড ম্যানেজার  ইত্যাদি বৈশিষ্ট্যের প্রয়োজন হয় তবে এটি আপনার জন্য সেরা হবে। এর ফায়ারওয়াল খুবই ভালো, এটি ইন্টারনেটে অবাঞ্ছিত সংযোগ থেকে রক্ষা করে এবং কম্পিউটারে কোনো ধরনের ভাইরাস বা ম্যালওয়্যার প্রবেশ করতে দেয় না।

আপনারা এই লিংক থেকে ক্যাসপারস্কি টোটাল সিকিউরিটি সফটওয়্যারটি কিনতে পারবেন।

অ্যাভাস্ট প্রিমিয়ার

যদি উইন্ডোজ পিসির জন্য ফ্রি অ্যান্টিভাইরাসের কথা আসে, তবে আমি অ্যাভাস্টকে সেরা মনে করি। তবে আমরা এখানে সেরা অ্যান্টিভাইরাস সম্পর্কে কথা বলছি। অ্যাভাস্ট প্রিমিয়ারও কোনো দিক থেকে পিছিয়ে নেই। এই সফ্টওয়্যার আপনাকে সম্পূর্ণ বৈশিষ্ট্য প্রদান করে। আপনি একটি একক সফ্টওয়্যারে ইন্টারনেট সুরক্ষা , ফায়ারওয়াল , ভাইরাস সুরক্ষা , সফ্টওয়্যার আপডেট , পাসওয়ার্ড ম্যানেজার ইত্যাদির মতো শক্তিশালী বৈশিষ্ট্যগুলি পাবেন। আমি গত তিন বছর ধরে এই অ্যান্টিভাইরাস সফটওয়্যারটি ব্যবহার করছি কোনো সমস্যা ছাড়াই। এখন পর্যন্ত এর কারণে আমার ল্যাপটপে ভাইরাসের মতো কোনো সমস্যা দেখা যায়নি।

আপনারা এই লিংক থেকে অ্যাভাস্ট প্রিমিয়ার সফটওয়্যারটি কিনতে পারবেন।

নর্টন সিকিউরিটি স্ট্যান্ডার্ড

নর্টন অ্যান্টিভাইরাসকে ব্যবসার নিরাপত্তার জন্য সেরা সফটওয়্যার হিসেবে বিবেচনা করা হয়। আপনি যদি প্রচুর ইন্টারনেট ব্যবহার করেন তবে এই অ্যান্টিভাইরাসটি ইনস্টল করুন। এটি আপনাকে অনলাইন ভাইরাস যেমন Wi-Fi , স্প্যাম ইমেল , ওয়েব নিরাপত্তা ইত্যাদি থেকে রক্ষা করে । আপনি যদি USB ডিভাইসের ভাইরাস দ্বারা সমস্যায় পড়ে থাকেন, তাহলে এই সফটওয়্যারটি আপনাকে এই সমস্যা থেকেও মুক্ত করবে।

আপনারা এই লিংক থেকে নর্টন সিকিউরিটি স্ট্যান্ডার্ড সফটওয়্যারটি কিনতে পারবেন।

AVG আলটিমেট

AVG, 1991 সাল থেকে ইন্টারনেট এবং ভাইরাস সুরক্ষা নিয়ে কাজ করছে এবং আজ এটি একটি সেরা অ্যান্টিভাইরাস সফ্টওয়্যার। এটি কম্পিউটারে ছোট-বড় ভাইরাস খুঁজে বের করে এবং অপসারণ করে। AVG Ultimate হল AVG দ্বারা ডেভেলপ করা একটি দুর্দান্ত অল-ইন-ওয়ান অ্যান্টিভাইরাস সফ্টওয়্যার৷ এটি আপনাকে ভাইরাস থেকে মুক্ত করে যা স্পাইওয়্যার এবং অ্যাডওয়্যারের মতো ব্যক্তিগত তথ্যে প্রবেশ করে। যদি কোনো ভাইরাস বা জাঙ্কের কারণে আপনার সিস্টেম ধীর হয়ে যায়, তাহলে এই সফ্টওয়্যারটি সেগুলোকে সনাক্ত করে এবং ডিলিট করে দেয় যাতে আপনার কম্পিউটার দ্রুত কাজ করা শুরু করে।

আপনারা এই লিংক থেকে AVG আলটিমেট সফটওয়্যারটি কিনতে পারবেন।

শেষ কথা

আপনি যদি আপনার পিসি বা ল্যাপটপে উপরের যেকোনো একটি অ্যান্টিভাইরাস ইন্সটল করেন, তাহলে আপনার কোনো ধরনের ভাইরাস কে ভয় পাওয়ার দরকার নেই। আপনাকে সব সময় আপনার অ্যান্টিভাইরাস সফটওয়্যার আপডেট করতে হবে।আপডেট করার সবচেয়ে বড় সুবিধা হল ইন্টারনেটে যদি নতুন কোনো ভাইরাস আসে তাহলে আপনার অ্যান্টিভাইরাস তার সাথে লড়াই করার জন্য প্রস্তুত থাকবে।

আর্টিকেলটি নিয়ে যে কোন ধরনের প্রশ্ন বা মন্তব্য থাকলে কমেন্ট সেকশনে জানান।

ধন্যবাদ ।

Share on:

আমি অঞ্জন, এই সাইটটির প্রতিষ্ঠাতা। এই ব্লগে টিপস & ট্রিকস, অনলাইন ইনকাম, কম্পিউটার সমস্যা সমাধান সহ আরো অনেক কিছুর উপর সঠিক ও নির্ভুল তথ্য দেওয়া হয়।

Leave a Comment