স্মার্টফোনে ফাইল হাইড করবেন যেভাবে

আমাদের সকলেরই মোবাইলে কিছু ব্যক্তিগত ছবি এবং ভিডিও থাকে যা আমরা প্রায়ই কারো সাথে শেয়ার করতে চাই না। অনেক সময় আমাদের ফোনটি পরিবারের কাছে যায়, যার ফলে তারা আপনার ব্যক্তিগত ফাইল যেমন ছবি, অডিও বা ভিডিও দেখে ফেলতে পারে। কিন্তু সবচেয়ে বেশি বিপদ হয় কিছু বন্ধুর কাছ থেকে। কারণ আপনার ব্যক্তিগত ফাইল যদি কোনো বন্ধুর হাতে পরে, তাহলে তারা এর ভুল সুবিধা নিতে পারে। এমন পরিস্থিতিতে আপনার ফোনে থাকা ব্যক্তিগত ফাইল সবসময় লক করে রাখা উচিত যাতে কেউ আপনার ব্যক্তিগত ফাইল দেখতে না পারে। ইন্টারনেটে, আপনি শত শত অ্যাপ্লিকেশন পাবেন যে গুলোর মাধ্যমে আপনি আপনার মিডিয়া ফাইল লুকিয়ে রাখতে পারবেন। আজকের আর্টিকেলে আমি আপনাদের সাথে স্মার্টফোনে ফাইল হাইড করার পদ্ধতি নিয়ে আলোচনা করব।

কিন্তু এমন কিছু অ্যাপ আছে যেগুলো বেশ জনপ্রিয় এবং খুব ভালো কাজ করে। আপনি যদি কোনও অ্যাপ ছাড়াই গ্যালারি থেকে ছবি লুকিয়ে রাখতে চান তবে সেটিও সম্ভব। কিন্তু এর প্রক্রিয়াটি একটু জটিল এবং আপনাকে বার বার করে ফাইল ফটো ভিডিও সার্চ করতে হবে। এই পোস্টে আমরা আপনাকে এমন অ্যাপস সম্পর্কে বলতে যাচ্ছি যা দেখতে একটি ক্যালকুলেটর এবং এটি ক্যালকুলেটর হিসাবেও কাজ করে কিন্তু আপনি এর ভিতরে আপনার ফাইল লুকিয়ে রাখতে পারেন।

স্মার্টফোনে ফাইল হাইড করার পদ্ধতি

আজকের আর্টিকেলে আমরা যে ফটো হাইডার অ্যাপ সম্পর্কে বলতে যাচ্ছি তার নাম হল Calculator – Photo Vault & Video Vault hide photos যা ফিশিংনেটের ডেভেলপাররা তৈরি করেছেন। যখনই আপনি প্লে স্টোরে ক্যালকুলেটর ভল্ট সার্চ করবেন, আপনি ফলাফলে প্রথমেই এই অ্যাপটি দেখতে পাবেন। আপনার যদি এখনই এই অ্যাপটির প্রয়োজন হয়, তাহলে আপনি এখানে ক্লিক করে এটি ডাউনলোড করে ইনস্টল করতে পারেন।

Calculator – Photo Vault & Video Vault hide photos

এখন পর্যন্ত এটি গুগল প্লে স্টোরে ১ কোটিরও বেশি ব্যবহারকারী ডাউনলোড করেছেন এবং এটি ইউজারদের দ্বারা ৪.৭ এর দুর্দান্ত রেটিং পেয়েছে। যার অন্যতম একটি কারন হল সাধারণ ভাবে এটি একটি ক্যালকুলেটর হিসাবে কাজ করে এবং ভিতর থেকে এটি আপনার ব্যক্তিগত ফাইল লুকিয়ে রাখে। ক্যালকুলেটর ফটো ভল্ট ব্যবহার করা খুবই সহজ, আপনি মাত্র কয়েক সেকেন্ডের মধ্যে এটি সেটআপ করতে পারবেন, তাহলে চলুন জেনে নিই কিভাবে ক্যালকুলেটর ফটো ভল্ট সেটআপ এবং ব্যবহার করতে হয় করতে হয়।

  • প্রথমে প্লে স্টোর থেকে অথবা এই লিঙ্ক থেকে ক্যালকুলেটর ফটো ভল্ট অ্যাপটি ডাউনলোড করে আপনার ফোনে ইনস্টল করুন।
  • যখন আপনি অ্যাপটি ওপেন করবেন, এটি ক্যালকুলেটর আকারে খুলবে, এতে আপনি চার ডিজিটের (Ex- ৯৮৭৬) একটি পাসওয়ার্ড টাইপ করে “=” আইকনে ক্লিক করতে হবে।

আরও পড়ুনঃ কিভাবে উইন্ডোজ ১০ এ ভিপিএন পাসওয়ার্ড দেখবেন

  • পাসওয়ার্ড নিশ্চিত করতে, আপনাকে পুনরায় চার ডিজিটের পাসওয়ার্ডটি (৯৮৭৬) টাইপ করতে হবে এবং “=” আইকনে ক্লিক করতে হবে। এই চার ডিজিটের পাসওয়ার্ড আপনি আপনার ইচ্ছামত দেবেন। যখনই আপনি ক্যালকুলেটর ভল্টে থাকা লুকানো ফাইল দেখতে চাইবেন, আপনাকে আপনার পাসওয়ার্ড লিখতে হবে এবং = এ ক্লিক করতে হবে।
  • পাসওয়ার্ড তৈরির পর এই অ্যাপটি আপনার কাছে কিছু অনুমতি চাইবে, আপনাকে সব অনুমতি দিয়ে দিতে হবে।
  • এখন আপনাকে পাসওয়ার্ড রিকভারি করার জন্য একটি নিরাপত্তা প্রশ্ন নির্বাচন করতে বলা হবে (যেমন আপনার জন্মস্থানের নাম কি) । আপনি যে কোন একটি প্রশ্ন সিলেক্ট করে, নিচে উত্তর এর জায়গায় আপনার সিলেক্ট করা প্রশ্নের উত্তর টি টাইপ করে নেক্সট বাটনে ক্লিক করুন।
  • এর পরে আপনার সামনে একটি নতুন পেজ ওপেন হবে, এখন আপনাকে আপনার গ্যালারির ছবি বা ফাইল লুকানোর জন্য প্লাস + আইকনে ক্লিক করতে হবে। এর পরে, আপনি যে ছবি, ভিডিও বা ফাইল যা লুকিয়ে রাখতে চান সেটি নির্বাচন করুন।

আরও পড়ুনঃ কিভাবে ডিলিট হওয়া ফাইল পুনরুদ্ধার করতে হয়

  • এরপর আপনার ফোনের গ্যালারি ওপেন হবে, এখন আপনি যে ফাইলগুলো হাইড করতে চান সেগুলো নির্বাচন করতে হবে এবং মুভ টু ভল্টে ক্লিক করতে হবে। মুভ টু ভল্টে ক্লিক করার পরে, সেই ফাইলগুলি আপনার গ্যালারি থেকে হাইড হয়ে যাবে, যা আপনি পরবর্তীতে এই অ্যাপের মাধ্যমে দেখতে পাবেন।
  • আপনি যদি পুনরায় ফাইল গুলো আপনার মোবাইলের গ্যালারিতে ফিরিয়ে নিতে চান, তাহলে আপনাকে সেই ছবিগুলি ভল্ট থেকে পুনরায় নির্বাচন করতে হবে এবং আনলক আইকনে ক্লিক করতে হবে। আনলক আইকনে ক্লিক করার পর আপনার ফটোগুলি পুনরায় গ্যালারিতে দেখতে পাবেন।

উপরের ধাপ গুলো অনুসরন করে আপনি আপনার ব্যক্তিগত ছবি বা ফাইল খুব সহজেই লুকিয়ে রাখতে পারবেন। যাইহোক, অনেক সময় আমরা পাসওয়ার্ড ভুলে যাই, তাই যদি আপনি এই অ্যাপের পাসওয়ার্ড কোন কারনে ভুলে যান, তাহলে এটি পুনরুদ্ধার করতে, আপনাকে ক্যালকুলেটরে 11223344 লিখতে হবে এবং “=” এর আইকনে ক্লিক করতে হবে। এর পরে আপনাকে একটি নিরাপত্তা প্রশ্ন (যা আপনি আগে নির্বাচন করেছিলেন) জিজ্ঞাসা করা হবে । প্রশ্নের উত্তর টি সঠিকভাবে দেয়ার পর আপনি আপনার পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করতে পারবেন ।

সতর্কতাঃ

যদি কোন কারনে অ্যাপটি আনইনস্টল করার প্রয়োজন হয়, তাহলে অবশ্যই প্রথমে আপনাকে আপনার হাইড করে রাখা সমস্ত ছবি বা ফাইল গ্যালারিতে ফিরিয়ে নিয়ে যেতে হবে। কারণ অ্যাপটি আনইনস্টল করা হলে আপনার লুকানো ফাইল গুলো মুছে যাবে, যা আপনি আর ফেরত নিয়ে আসতে পারবেন না। আর এই বিষয়টি প্রায় সব ফাইল হাইড অ্যাপের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য ।

শেষ কথা

আজকের আর্টিকেলের মাধ্যমে আমরা স্মার্টফোনে ফাইল হাইড করার পদ্ধতি সম্পর্কে আলোচনা করলাম। যে কোনও ফোনে ছবি বা ফাইল হাইড করা খুব সহজ, এর জন্য অ্যাপ এবং বিনা অ্যাপের মতো পদ্ধতি ব্যবহার করা হয়। এই পোস্টে, আমরা আপনাকে অ্যাপের মাধ্যমে ফাইল হাইড করার পদ্ধতিটি বলেছি যা ফটো লুকানোর সবচেয়ে সহজ উপায় হিসাবে বিবেচিত হয়।

 

Share on:

আমি অঞ্জন, এই সাইটটির প্রতিষ্ঠাতা। এই ব্লগে টিপস & ট্রিকস, অনলাইন ইনকাম, কম্পিউটার সমস্যা সমাধান সহ আরো অনেক কিছুর উপর সঠিক ও নির্ভুল তথ্য দেওয়া হয়।

Leave a Comment